০৬ জুন বৃহস্পতিবার দ্বাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশনে ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। এটি অর্থমন্ত্রীর প্রথম বাজেট।

২০২৩-২৪ অর্থবছরের চেয়ে এবারের বাজেটের আকার চার দশমিক ছয় শতাংশ বেড়েছে।
আগামী ২০২৪-২৫অর্থবছরের জন্য ৭ লাখ ৯৭ হাজার কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়,জিডিপির অনুপাতে গত এক দশকের সবচেয়ে ছোট বাজেট এটি।

এবারের বাজেট দেশের ৫৩ তম,আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের ২৫তম বাজেট এটি।

২০২৪-২৫ অর্থবছরে বাজেটে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা পাঁচ লাখ ৪১ হাজার কোটি টাকা। বাকি দুই লাখ ৫৬ হাজার কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার লক্ষ্যমাত্রায় থাকছে।

যেসব পণ্যের দাম বাড়বে:

বৈদ্যুতিক মিটার,সিএনজি-এলপিজিতে কনভার্সন খরচ, জেনারেটর,সিগারেট, মোবাইল ফোনের সিমকার্ড, মোবাইলের কল রেট, আইসক্রিম,গাড়ি, কোমল পানীয় ও এনার্জি ড্রিংকস, কাজুবাদাম, এসি, ফ্রিজ উৎপাদনে ব্যয়, পানির ফিল্টার, এলইডি বাল্ব, আমদানি করা ম্যাকরেল মাছ, ,ইট, নিরাপত্তা সেবা, হাটবাজারের ইজারা ও হাসপাতালের সরঞ্জাম আমদানির,প্রি-ফেব্রিকেটেড বিল্ডিং নির্মাণ ব্যয়।

যেসব পণ্যের দাম কমবে:

গোলমরিচ, এলাচ, দারুচিনি, লবঙ্গ, পেঁয়াজ, রসুন,শুকনা মরিচ, হলুদ,মটর, ছোলা, চাল, গম, আলু, মসুর ডাল, ভোজ্যতেল, চিনি, আদা,ডাল, ভুট্টা, ময়দা, আটা, লবণ,খেজুর, তেজপাতা, পাট, তুলা, সুতা এবং সব ধরনের ফলসহ ৩০ পণ্য। এছাড়া গুঁড়ো দুধ, চকলেট, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, নির্মাণ সামগ্রী, সুইচ-সকেট,মোটরসাইকেল, কিডনি ডায়ালাইসিসের ফিল্টার, কার্পেট, ডেঙ্গু কিট ও ক্যান্সার চিকিৎসা,ইলেকট্রিক মোটর, উড়োজাহাজ রক্ষণাবেক্ষণে খরচ।

খাতভিত্তিক বরাদ্দ

ধর্ম ও সংস্কৃতি খাতে ৬ হাজার ৭০০ কোটি টাকা,কৃষি খাতে ৩৮ হাজার ২৫৯ কোটি টাকা,প্রাথমিক ও গণশিক্ষায় ৩৮ হাজার ৮১৯ কোটি, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষায় ৪৪ হাজার ১০৮ কোটি টাকা, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের জন্য ১১ হাজার ৭৮৩ কোটি টাকা,
পরিবহন ও যোগাযোগ খাতে ৮০ হাজার ৪৯৮ কোটি টাকা, স্বাস্থ্যসেবা এবং স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণে ৪১ হাজার ৪০৭ কোটি,
জননিরাপত্তা খাতে ২৬ হাজার ৮৭৭ কোটি টাকা, স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন খাতে ৪৬ হাজার ৫৫২ কোটি টাকা, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে ৩০ হাজার ৩১৭ কোটি টাকা,
পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে ১১ হাজার ১৯৪ কোটি টাকা, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ে ২ হাজার ২১১ কোটি ৯৫ লাখ টাকা,
প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের জন্য ১ হাজার ২১৭ কোটি টাকা, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ে দুই হাজার ১৩০ কোটি টাকা,সামাজিক নিরাপত্তা ও কল্যাণ খাতে ১ লাখ ৩৬ হাজার ২৬ কোটি,শিল্প খাতে ২ হাজার ৫১০ কোটি টাকা এবং প্রতিরক্ষা খাতে ব্যয় হবে ৪২ হাজার ১৪ কোটি টাকা।