বঙ্গোপসাগ এলাকায় অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়েছে । আজ শনিবার বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

যার কারনে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত নামিয়ে মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৭ নম্বর এবং চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড়টির নাম ‘রেমাল’, নামটি প্রস্তাব করেছে ওমান।

আবহাওয়াবিদদের মতে ঘূর্ণিঝড়টি আঘাত হানার সময় বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ১১০ থেকে ১১৮ কিলোমিটার থাকতে পারে। খেপুপাড়া ও পশ্চিমবঙ্গে সাগর আইল্যান্ড ঘেঁষে ঝড়টি স্থলভাগ অতিক্রম করবে,সঙ্গে ভারী বৃষ্টিপাত ও জলোচ্ছ্বাস থাকবে। খুলনা,সুন্দরবন,চট্টগ্রাম সহ উপকূলীয় সব জেলায় ঝড়ের প্রভাব পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড়ের গতি পরিবর্তন না হলে রোববার দুপুরে রেমালের অগ্রভাগ উপকূলে আঘাত হানবে এবং সন্ধ্যা নাগাদ স্থলভাগ অতিক্রম শুরু করবে।ঝড়ের প্রভাব বাংলাদেশ অংশে বেশি থাকতে পারে।

এদিকে বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করা গভীর নিম্নচাপটি সন্ধ্যা ৭টা ১০ মিনিটে ঘূর্ণিঝড় রেমালে পরিণত হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ওয়েদার অবজারভেশন টিম (বিডব্লিউওটি)।